Health & Food

সবজি ও মসলা ভালো রাখার উপায়

ব্যস্ততার এই সময়ে বাজার করার জন্য আলাদা সময় বের করা বেশ মুশকিলই বটে। দেখা যায়, ছুটির দিনে লম্বা লিস্ট নিয়ে সারা সপ্তাহের বাজার সেরে ফেলেন অনেকেই। তবে বিপদে পড়তে হয় তখনই, যখন সংরক্ষণের অভাবে দ্রুত নষ্ট হয়ে যায় কাঁচা তরিতরকারী। আবার মসলাপাতি ঠিকভাবে না রাখলে স্বাদ আর গন্ধও নষ্ট হয়ে যায়। যদি কিছু নিয়ম মেনে চলেন, তাহলে আপনার মাসকাবারি বাজারে টাকা আর পরিশ্রম—দুটিই বাঁচানো সম্ভব।

মসলা
গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রেহানা বেগম বললেন, মসলা নষ্টের প্রধান কারণ আর্দ্রতা। বিশেষ করে গুঁড়া মসলা এ কারণে আরও দ্রুত নষ্ট হয়। মসলা রাখতে হবে বয়ামে। যাতে বাতাস না ঢুকতে পারে। সবচেয়ে ভালো হয় যদি রোদে শুকিয়ে রাখা যায়। সারা বছরের মসলা একবারে গুঁড়া করে রাখতে চাইলে ভালো করে শুকিয়ে, বায়ুরোধী বাক্সে ভরে ডিপ ফ্রিজে রাখলে অনেক দিন ভালো থাকবে। এদিকে বেশি দিন হয়ে গেলে বাটা মসলা থেকে গন্ধ বের হয় এবং তা দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। তাই বাটা মসলার ওপরে অল্প লবণ ছিটিয়ে ডিপ ফ্রিজে রেখে দেওয়া ভালো।

এ ছাড়া আরও কিছু টিপস মেনে চলতে পারেন। তাহলে মসলার গন্ধ ও স্বাদ বেশ কিছুদিন ভালো থাকবে।

● মসলা ব্যবহারের সময় পাত্রটি চুলার কাছে নেবেন না। বয়ামটি বাষ্প থেকে দূরে রাখুন।

● গরমমসলা ও জিরা চুলার পাশে বা রোদে রাখবেন না। রোদের তাপে মসলার স্বাদ ও গন্ধ—দুটিই নষ্ট হয়ে যায়। বয়াম থেকে যে চামচ দিয়ে মসলা তুলবেন, তা যেন পরিষ্কার ও শুকনো হয়। সম্ভব হলে প্রতি মসলায় আলাদা চামচ ব্যবহার করুন।

● আলু ও পেঁয়াজ একসঙ্গে বেশি পরিমাণে কেনা হয়। তাই পেঁয়াজ বাঁশ বা প্লাস্টিকের ঝুড়িতে ছড়িয়ে রাখুন। মাঝেমধ্যে নেড়েচেড়ে দিন। পচা পেঁয়াজ বেছে বের করে নিন। এতে পেঁয়াজ অনেক দিন ভালো থাকবে।

● চাল রাখার পাত্রে কয়েকটা শুকনো নিমপাতা রেখে দিন। এতে পোকা লাগবে না।

● গুঁড়া করা মসলা যেমন জিরা, ধনে, গোলমরিচ ইত্যাদি মজুত করার আগে হালকা তাপে টেলে নিয়ে ঠান্ডা করে কৌটায় রাখুন। অনেক দিন গন্ধ ভালো থাকবে।

● কারিপাতা ও পুদিনাপাতা কয়েক দিন রাখলে শুকিয়ে যায় ও পচে যায়। এই পাতা শুকিয়ে, গুঁড়া করে বোতলে রাখুন।

● কাজুবাদাম, পেস্তা অনেক দিন ভালো রাখতে সামান্য চিনি মিশিয়ে রাখুন। অনেক দিন ভালো থাকবে।

● রসুন আঁটসাঁট করে একসঙ্গে রাখা ভালো। রসুনের মাথাগুলো একসঙ্গে করে বাঁধুন। এইভাবে একটার সঙ্গে আরেকটা রসুন লেগে থাকলে তা দীর্ঘদিন ভালো থাকবে।

● কাঁচা মরিচ ফ্রিজে রেখে অনেক দিন খাওয়া যায়। ফ্রিজে রাখার আগে বোঁটা ফেলে, ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এতে মরিচ ৯–১০ দিন টাটকা থাকবে। 

● আদা বাইরে রাখলে শুকিয়ে যায়, আবার ফ্রিজেও বেশি দিন রাখা যায় না। বালুর নিচে রাখলেও বহুদিন তাজা থাকবে আদা।

সবজি
ভিনেগার বা পাতিলেবুর রস মেশানো পানিতে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখলে শাকসবজি দীর্ঘদিন টাটকা থাকে। এবং তা কীটনাশকমুক্তও হয় বলে জানালেন রেহানা বেগম। এরপর পানি ভালোভাবে ঝরিয়ে নিয়ে বায়ুরোধী প্যাকেটে ফ্রিজে রাখুন। কাজ সহজ করতে আর সময় বাঁচাতে কয়েক দিনের সবজি কেটে, ভাপ দিয়ে আলাদা বক্সে ভরে ডিপ ফ্রিজে সংরক্ষণ করা যায়। 

● সবুজ শাকপাতার মধ্যে রয়েছে ধনেপাতা, পেঁয়াজপাতা, লেটুসপাতা ইত্যাদি আর বিভিন্ন ধরনের শাক। দীর্ঘদিন টাটকা রাখার জন্য এসব কাগজের ব্যাগে মুড়িয়ে ফ্রিজে রাখুন। তবে শাক ফ্রিজে খুব বেশি দিন ভালো থাকে না। 

● গাজর ফ্রিজে ঠান্ডা অবস্থায় বেশ ভালো থাকে। গাজর ভালোভাবে ধুয়ে নিন, তারপর কেটে কোনো কনটেইনারে রেখে মুখ বন্ধ করে ফ্রিজে রেখে দিন। এতে পরবর্তী ব্যবহারের জন্যও সহজ হবে।

● মাশরুম ও টমেটো কাগজের ব্যাগে বা খবরের কাগজের ওপর রাখলে বেশি দিন ভালো থাকবে।

Related Articles

Close